লিখুন
ফলো

আমাদের নতুন খবর গুলো পেতে এখনি সাইন আপ করুন

গল্পটা কোকা কোলার

আচ্ছা আপনার প্রিয় কোমল পানীয় কোনটা?  আমার কিন্তু সবচাইতে ফেভারিট সবসময়ই কোকাকোলা। শুধু আমি একমাত্র নয় সারা বিশ্বের বেশিরভাগ মানুষের কাছে কোকা কোলা সেরা।

আপনি জানেন কি বিশ্বের প্রথম কোমল পানীয় কোনটি? এটার উত্তরটাও কিন্তু কোকাকোলা। দ্যা কোকাকোলা কোম্পানির দাবি সারা বিশ্বে  ২০০টির বেশি দেশে কোকাকোলা বিক্রি হয়। এটি কোক নামেও জনপ্রিয়। এই পানীয়র মজার ইতিহাস নিয়েই আজকের আর্টিকেল।

কোকাকোলার সূচনা

পৃথিবীর অন্যতম জনপ্রিয় সফট ড্রিঙ্কসকোকাকোলার জম্ম হয়েছিলো যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের কলম্বাসের ইগল ড্রাগ এন্ড ক্যামিক্যাল কোম্পানিতে। এটি ছিলো ফার্মাসিস্ট জন পেম্বারটন ফর্মুলা। ধরনা করা হয় যে যখন ইউরোপের ভিন মারিয়ানি কোকা ওয়াইন জনপ্রিয় হতে থাকে তখন সেটি দেখেই অনুপ্রাণিত হয়েছিলেন জন যার ফলস্বরুপ আসে আমাদের কোক। কিন্তু এটা কিন্তু ব্যবসায়িক কারণে নয় বরং নিজের জন্য। ১৮৫০ সালে ফার্মেসি নিয়ে পড়াশুনা শেষ করেন জন। মানুষের সেবা উদ্দেশ্য থাকলেও এতে বাদ সাদে আমেরিকায় চলা দাসপ্রথা নিয়ে গৃহযুদ্ধ। এতে জর্জিয়ার সেন্ট গার্ডের পক্ষ নেন জন আর মারাত্ত্বক ভাবে আহত হন তিনি। ব্যাথা নিবারণের জন্য নিয়মিত শরীরে নিতেন মারফিন ইঞ্জেশন যা এক পর্যায়ে অভ্যাসে পরিণত হয়। 

Image Source: Ati

কিন্তু সেসময়ে মারফিন ব্যায়বহুল হওয়ায় তাকে এটা ছাড়তে হয়। আর তখন তিনি নেশার জন্য নিতে শুরু করেন কোকা পাতা। নেশা হলেও কোকা পাতার স্বাদ অনেক তিতো। তাই এর সাথে নানান উপাদান মিলিয়ে খাওয়ার উপযুক্ত করতেন জন।  একদিন কি মনে করে যানো এর সাথে মিশিয়ে দিলেন কোলা বাদামের গুড়ো। পরদিন সোডা ওয়াটারের আথে মিশিয়ে দিলেন কোকা আর সাথে কোলা বাদামের গুড়ো আর এর পর যা হলো তাতে তিনিই অবাক। ইতিহাস তৈরি করতে আসলো সবচাইতে জনপ্রিয় কোমল পানীয় কোকাকোলা।  

কোকাকোলার যাত্রা

নতুন এই পানীয়র বিষয় জানাতে পরের দিন জন পেম্বারটন গেলেন বন্ধু উইলিস ভেনাবলের কাছে । তিনি ঔষুধের দোকানের মালিক চিলেন। কোকা কোলার স্বাদ নিয়ে উইলিস প্রছন্দ ভালো লাগলো। দুই বন্ধু ঠিক করলেন কোকা কোলা ব্যবসায়িক ভাবে বিক্রয় করবেন আর উইলিসের দোকানেই  কোকা কোলা বিক্রির সিধান্ত নেওয়া হয়। কয়েক মাস পর রেন-টনিক ঔষুধ হিসেবে বাজারে আসে কোকা কোলা। কিছু দিন পরই রেন-টনিক নয় এটি জনপ্রিয় হয়। কিন্তু জন পেম্বারটন  কিন্তু কোকা কোলার ফর্মুলা তার বন্ধুকে জানিয়েছিলেন না বরং জন নিজের ল্যাবটারিতেই তৈরি করতেন এই জনপ্রিয় কোমল পানীয়। 

১৮৮৬ সালের দিকে এই আটলান্টা ও ফুলটন কাউন্টি অ্যালকোহলিক পানীয়ের বিরুদ্ধে আইন পাস করা হয় যাতে করে অ্যালকোহল যুক্ত পানীয় বিক্রয়ে কড়াকড়ি আরোপ করে সরকার। আর এর পরেই আসে কোকাকোলার যুগ। 

Image Source: pinterest

প্রথম কোকাকোলা বিক্রয় করা হয়েছিলো যুক্তরাষ্ট্রের জর্জিয়া অঙ্গরাজ্যের আটলান্টা শহরে ৮ মে ১৮৮৬ সালে। তবে প্রথম অবস্থায় এটি মেডিসিন বা ঔষুধ হিসেবে বিক্রি করা হত। কিন্তু এখনকার মত বোতলে নয় গ্লাসে বিক্রি করা হত, প্রতি গ্লাসের মূল্য ছিলো ৫ সেন্ট।  আবিষ্কারক জন পেম্বারটন দাবি করেন যে কোকা কোকা বিভিন্ন রোগে কাজ করে। একই বছর ২৯ মে আটলান্টা জার্নাল পত্রিকায় ২৯ মে প্রথম কোকা কোলার বিজ্ঞাপনটি দিয়ে জনসাধারণকে জানানো হয় বাজারের নতুন এই পানীয়র বিষয়ে। কিন্তু বাজারে এই ড্রিংস্ক বা পানীয়টি জনপ্রিয় যখন তখন বিজ্ঞাপন কোম্পানির মালিক ম্যানসন রবিনসন এর  নাম রাখেন এই পানীয়টির কোকা কোলা। আর যাত্রা শুরু করে The Coca Cola Company।  

কোকা কোলা বাজারে ছাড়ার পর জনপ্রিয়তা পেলেও তাদের আয় কিন্তু খুব কম ছিল। কিন্তু এখন তা কিন্তু আকাশ ছোয়া। কোকা কোলার বার্ষিক আয় প্রায় ৪০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার। সারা বিশ্বেই কোকা কোলা তুমুল জনপ্রিয় এর কারণ তারা সময়ের সাথে তাদের ব্যবসা ছড়িয়ে দিয়েছে বিশ্বের ২০০ টির বেশি দেশে।

কোকা কোলার নতুন পথ

যে মারফিনের নেশা বাদ দিতে জন তৈরি করেছিলেন কোকা কোলার তা আবিষ্কারকের নেশা কাটালো না উল্টো নেশার জন্য টাকা আর সংসার চালাতে তিনি কোকা কোলার ফর্মুলা বিক্রি করতে শুরু করেন সাথে বিক্রি করতে থাকেন কোম্পানির শেয়ার। এর কারণ নেশা তাকে প্রায় দেউলিয়া করে দিয়েছিলো। কিন্তু কোকা কোলার কপিরাইট আর মূল ফর্মুলা নিজেদের প্রতিষ্ঠানের কাছেই ছিলো কারণটি ছিলো জনের ছেলে চার্লি  পেম্বারটন। কিন্তু চার্লির ব্যবসায় আগ্রহের থেকে মারফিন, আফিমের প্রতি বেশি আগ্রহ ছিলো। তাই হাতে সোনার খনি থাকার পরেও উন্নতি করতে পারেনি।

চার্লি বাবা জনকে বলেন মূল ফরমুলাসহ The Coca Cola Company বিক্রি করলে আমাদের জন্য লাভজনক হবে। জন পেম্বারটন ছেলের কথামত অতি লাভের আশায় ১৮৮৮ সালে নিজেদের কোম্পানি বিক্রি করে দিয়েছিলেন এসো ক্যান্ডালারের কাছে।  এর পর The Coca Cola Corporatison থেকে কোকা কোলা নতুন করে যাত্রা শুরু করে বিশ্ব জয়ে। 

কোকা কলার লোগো

Image Source: world.net

সফট ড্রিংক্স কোকা কোলার জনপ্রিয়তা খুব দ্রুত ছড়িয়ে পরে। আর বাজারে নিজেকে আলদা করার জন্য কোকা কোলার  নিজেস্ব লোগো তাকে ব্র্যান্ড হিসেবে পরিচিতি দেয়। আমরা প্রায় সবাই জানি কোকা কোলার বোতলজাতের কাহিনি কিন্তু এই বিখ্যাত ব্র্যান্ডটির লোগো নিয়েও গল্প রয়েছে।   কোকা কোলার প্রথম লোগো তৈরি করা হয়ে ছিলো ১৮৮৬ সালে মাত্র ১ বছরের জন্য। দ্বীতিয় লোগোটি ছিলো ১৮৮৭ সাল থেকে ১৯৪১ পর্যন্ত। এ পর্যন্ত ৬ বার পরিবর্তন করা হয়েছে তাদের কোকা কোলার লোগোটি যথাক্রমে সময়গুলো ছিলো ১৮৮৬, ১৮৮৭, ১৮৯০, ১৮৯১, ১৯৪১, ও ১৯৮৭ সাল। বর্তমানের কোকা কোলার যে লোগোটি সেটি কিন্তু সেই ১৯৪১ সালের সময়ের।

কোকা কোলার শ্লোগান

সেই ১৮৮৬ সাল থেকেই কি৯ন্তু কোকা কোলার  শ্লোগান ব্যবহার করছে। তাদের এই শ্লোগান গুলোও বেশ জনপ্রিয়। নিচে বছর অনুসারে কোকা কোলার শ্লোগানগুলো দেওয়া হলো। 

  • 1886 – Drink Coca-Cola
  • 1905 – Coca-Cola revives and sustains.
  • 1906 – The great national temperance beverage.
  • 1908 – Good til the last drop.
  • 1910 – Whenever you see an Arrow think of Coca-Cola
  • 1917 – Three million a day.
  • 1922 – Thirst knows no season.
  • 1923 – Enjoy thirst.
  • 1924 – Refresh yourself.
  • 1925 – Six million a day.
  • 1926 – It had to be good to get where it is.
  • 1927 – Pure as Sunlight.
  • 1927 – Around the corner from anywhere.
  • 1928 – Coca-Cola … pure drink of natural flavors.
  • 1929 – The pause that refreshes.
  • 1932 – Ice-cold sunshine.
  • 1937 – America’s favorite moment.
Image Source: Google
  • 1938 – The best friend thirst ever had.
  • 1938 – Thirst asks nothing more.
  • 1939 – Coca-Cola goes along.
  • 1939 – Coca-Cola has the taste thirst goes for.
  • 1939 – Whoever you are, whatever you do, think of good ice-cold Coca-Cola.
  • 1941 – Coca-Cola is Coke!
  • 1942 – The only thing like Coca-Cola is Coca-Cola itself.
  • 1944 – How about a Coke?
  • 1945 – Coke means Coca-Cola.
  • 1945 – Passport to refreshment.
Image Source: Google
  • 1947 – Coke knows no season.
  • 1948 – Where there’s Coke there’s an ice-cold.
  • 1949 – Coca-Cola … along the highway to anywhere.
  • 1952 – What you want is a Coke.
  • 1954 – For people on the go.
  • 1956 – Coca-Cola … makes good things taste better.
  • 1957 – The sign of good taste.
  • 1958 – The cold, crisp taste of Coke.
  • 1959 – Coca-Cola refreshes you best.
  • 1963 – Things go better with Coke.
  • 1969 – It’s the real thing.
  • 1975 – Lookup, America.
  • 1976 – Coke adds life.
  • 1979 – Have a Coke and a smile (see also Hey Kid, Catch!)
  • 1980 – Coke is it!
Image Source: Google

  • 1982 – the launch of DietCoke in the US.
  • 1983 – the launch of DietCoke in the UK.
  • 1985 – America’s real choice.
  • 1986 – Red, white & you. (for Coca-Cola Classic)
  • 1986 – Catch the wave. (for New Coke)
  • 1987 – Can’t beat the feeling!.
  • 1990 – Can’t Beat The Real Thing.
  • 1993 – Always Coca-Cola. (brought back in the UK, Ireland, and Iceland 2018[4])
  • 1995 – Always and Only Coca-Cola (test-marketed, secondary radio jingle).
  • 1998 – Born to be red. (US)
  • 1998 – Coca-Cola always the real thing! (UK)
  • 1999 – Enjoy. (also used in the UK)
  • 2001 – Life tastes good. (also used in the UK)
  • 2003 – Real. (also used in the UK)
Image Source: Google

  • 2005 – Make It Real. (also used in the UK) and the launch of CokeZero in the US.
  • 2006 – the Coke side of life (also used in the UK) and the launch of CokeZero in the UK.
  • 2009–2015 – Open Happiness
  • 2016 – Taste the Feeling, and CokeZero renamed CokeZeroSugar.
  • 2018 – the new look of the DietCoke and words get smaller with Coke and CokeZeroSugar.
  • Jun 2018 – another new look of the diet coke.
  • Nov 2018 – the new look of CokeZeroSugar and Coke.
  • 2020 – Together Tastes Better
  • Jul 2020 – Be Open Like Never Before

কোকা কোলা আজ সারা বিশ্বেই তুমুল জনপ্রিয় প্রায় ১৫০ বছর পরেও। এই ব্রান্ডটির ইতিহাস আমাদের যেমন শেখায় টিকে থাকার গল্প তেমনি বুঝিয়ে দেয় নিজের পরিশ্রম দিয়ে নিজের অরজ্জন রক্ষা করতে।  দুঃখজনক হলেও জন পেম্বারটন কোকা কোলার বিশ্বব্যাপি জনপ্রিয়তা দেখে যেতে পারেনি। মারফিনের নেশা থেকেই পাকস্থলী ক্যানসারে ১৮৮৮ সালে মারা যান জন। বাবার মৃত্যুর ৬ বছর পর মারা যান ছেলে চার্লিও।

This is a Bangla Article. Here, everything is written about the “Coca Cola

Featured image taken from the “Motely Fool”

Reference Links are:

https://bn.wikipedia.org/wiki/%E0%A6%95%E0%A7%8B%E0%A6%95%E0%A6%BE-%E0%A6%95%E0%A7%8B%E0%A6%B2%E0%A6%BE

https://en.wikipedia.org/wiki/Coca-Cola

https://thewall.in/feature-the-sad-history-of-john-pemberton-who-invented-coca-cola/

https://www.britannica.com/topic/The-Coca-Cola-Company

https://logos-world.net/coca-cola-logo/?__cf_chl_jschl_tk__=97dc8d680be9cc0cb5b1e6be37a6be0bd0ab5518-1611845544-0-AfKaMqlU2tiG2PkD9yRVuyyE6iYd5Uw5SR0Y4l4YuG0srJpAlYe1qmyUNl_72jr8Bp8Y42TNrEnDXr7Bk95sGg9Blkq5OewH0evZISa8N9Nvf46IQfchJaaxwWGHY5VyRXb6nKbGESpa3NJdpJvgY3cuPRN1i6JtsPG5NLgcXOh-_DgkTfg-tpKcsgKR1rf5wnGsK-ZGcCFeC99iONGR5MqbaOt2ILiDWL2cwF3kufv33O3VhwtFmHLG_mp7ZsTWLFT1-QMsvTJWeViBb_F1iNLtmW6FlgpELz6MBEv7zzoYDlCqdkS7dDtGfUX0KyyuDbDgtAOjLtHfMwLgMCY74aXk8cwmv07VGDg3K5oV77-f0i7rHjtZbvjHNV1Fk1Scw5NO09pg-XalXCLwjnnQvl4

Total
86
Shares
Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

 
Previous Article

বয়েজ অ্যান দ্যা হুড (1991) : আমেরিকান পপ কালচার বদলে দেয়া কামিং-অফ-এইজ ফিল্ম

Next Article

অটোম্যান সাম্রাজ্য এবং তার ইতিহাস

 
Related Posts
আরও পড়ুন

রথসচাইল্ড ফ্যামিলি: বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর এক ইহুদী পরিবার

আমেরিকার রথসচাইল্ড পরিবার। ঠিক পরিবার নয়, যেন একটি গুপ্ত সংগঠন। বিশ্বের সবচেয়ে ক্ষমতাধর ইহুদী এই পরিবারটি অনেকটাই রহস্যময়।…
আরও পড়ুন

আন্দেজ পর্বতমালায় নিখোঁজ এক বিমানের অমীমাংসিত রহস্য

১৯৪৭ সালের ২রা আগস্ট। আর্জেন্টিনার রাজধানী বুয়েন্স আয়ার্স থেকে চিলির সান্টয়াগোর উদ্দেশ্যে আকাশে উড়ছে একটি যাত্রিবাহী বিমান। বিমানের…
আরও পড়ুন

ইন্টেল : বিশ্বের সর্ববৃহৎ সেমিকন্ডাক্টর চিপ প্রস্তুতকারী প্রতিষ্ঠান [পর্ব – ১]

শিরোনাম দেখে নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন আজকের লেখা ইন্টেল কর্পোরেশনকে নিয়ে। প্রথমেই জেনে নেওয়া যাক, ইন্টেল কর্পোরেশন  কি?  ইন্টেল…
আরও পড়ুন

বেনসন অ্যান্ড হেজেস : রাজকীয় ব্রিটিশ সিগারেটের সাতকাহন [পর্ব-১]

পৃথিবীর সবচেয়ে পরিচিত ব্র্যান্ডের নাম নিতে গেলে বেনসন অ্যান্ড হেজেস এর নাম সামনের দিকেই থাকবে। ধূমপায়ীরা তো বটেই…

আমাদের নিউজলেটার জন্য সাইন আপ করুন

আমাদের নতুন খবর গুলো পেতে এখনি সাইন আপ করুন

Sign Up for Our Newsletter